ভোলায় ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে মিথ্যা অপপ্রচারের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

প্রকাশিত: ১২:১৫ অপরাহ্ণ, জুলাই ৭, ২০২১

স্টাফ রিপোর্টারঃ

ভোলায় আলাউদ্দিন (৪৫) নামের এক ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির অভিযোগ এনে মিথ্যা ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত অপ-প্রচার করার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করা হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে ভোলার বাংলাস্কুল মোড় সংলগ্ন স্থানীয় একটি পত্রিকা অফিসে এ সংবাদ সম্মেলন করা হয়। আলাউদ্দিন ভোলা সদর উপজেলার চরসমাইয়া ১ নং ওয়ার্ডের সিদ্দিকের ছেলে।

অভিযুক্তর নাম মাইনউদ্দিন। তিনি সদর উপজেলা ভেদুরিয়া ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের সুলতানের ছেলে। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য আলাউদ্দিন বলেন, জীবিকার তাগিদে ১৯৯৮ সাল থেকে স্পিডবোট চালানোর মাধ্যমে কর্মজীবন শুরু হয়। পর্যায়ক্রমে বিভিন্ন এনজিও সংস্থা থেকে লোন নিয়ে চারটি স্পিডবোট কিনে নিজে ব্যবসা শুরু করি। তিনি আরও বলেন, দীর্ঘদিন ধরে ঘাটের স্পিডবোট পরিচালনা দায়িত্ব পালন করে আসছি। ২০২০ সালে স্থানীয় নেতাদের সঙ্গে স্পিডবোটের সিরিয়াল দেওয়াকে কেন্দ্র করে জামেলা হয়। বিষয়টি জেলা পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ সংশোধন করে ঘাট ইজারাদার নকিব চেয়ারম্যানকে দায়িত্ব বুঝিয়ে দেন। ৫ মে লকডাইন শুরু হলে স্পিডবোট বন্ধ থাকে।
তবে ইমার্জেন্সি রোগির জন্য চলাচলের ব্যবস্থা থাকবে। তখন কিছু কুচক্রী মহল ইজারাদারকে পরামর্শদেন রোগি নামিয়ে খালি ফেরা স্পিডবোট দিয়ে যাত্রী পারাপার করতে। মহলের পরামর্শে লাহার হাট ও বরিশাল থেকে আসা ১২০-১৩০ টি স্পিডবোট থেকে ১৫শ থেকে ২ হাজার টাকা করে চাঁদা নিতেন। বিষয়টি মিডিয়া ও প্রশাসনের দৃষ্টিগোচর হয়।

পরে প্রশাসন বিষয়টি তদন্ত করতে সরেজমিনে গেলে ঘাট ম্যানেজার মাইনুদ্দিন বিষয়টি আমার (আলাউদ্দিনের) যোগসাজসে হয়েছে বলে দোষারোপ করেন। বিষয়টি আমি (আলাউদ্দিন) ঘাট ইজারাদার নকিব চেয়ারম্যানকে জানালে সে কৌশলে এড়িয়ে যায়। মাইনুউদিন সহ মহলটি চাঁদাবাজির অভিযোগ এনে মিথ্যা ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত আপ-প্রচার চালিয়ে আমাকে সামাজিক ও রাজনৈতিকভাবে হেয়প্রতিপন্ন করার জন্য উঠে পড়ে লেগেছে।
এছাড়াও আমার ঘাটের ব্যবসা বাণিজ্য বন্ধ করে দেন মাইনুদ্দিন। এ ধরণের মিথ্যা ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত অপ-প্রচারের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে আলাউদ্দিন ভোলা-১ আসনের সাংসদ তোফায়েল আহাম্মেদ,জেলা প্রশাসন ও পুলিশ সুপারের সু-দৃষ্টি কামনা করেন।