মাদারীপুরের শিবচরের সালিশী বৈঠক কে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে নিহত ১, আহত ৫

প্রকাশিত: ৮:০৭ পূর্বাহ্ণ, এপ্রিল ২১, ২০২১

মীর এম ইমরান (ষ্টাফ রিপোর্টার) মাদারীপুরঃ

মাদারীপুরের শিবচরে কাঠালবাড়ী ইউনিয়নের, ৯নং ওয়ার্ডের,বাবু মোল্লার গ্রামে সালিশী বৈঠকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে,এতে আঃ খবির শেখ (৬০)নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় পাঁচজন আহত হয়েছেন।

এলাকার সূত্রে জানা যায় সোমবার (১৯ এপ্রিল) সন্ধা ৭ টার দিকে উপজেলার কাঠালবাড়ি ইউনিয়নের বাবু মোল্লার কান্দি গ্রামে সালিশী বৈঠককে কেন্দ্র করে এঘটনা ঘটে।

নিহত আঃ খবির শেখ ওই এলাকার মৃত হাছেন শেখের এক মাত্র ছেলে।

পারিবারিক ও স্থানীয় সুত্রে জানা যায়,গত কয়েকদিন আগে আঃ খবির শেখের চাচাতো ভাই শাহজাহান শেখ ও তার চাচাতো বোন হালিমার মধ্য পাটকাঠি ভাগাভাগি নিয়ে দ্বন্দ্ব হয়।
এ ঘটনায় গতকাল বিকেলে ঐ ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ড সদস্য মোঃ সাইদ বেপারীর মধ্যস্থতায় শালিসি বৈঠক হয়। শালিসির শেষের দিকে নিহতের বাড়ির প্রতিবেশী ফজলু মাদবর ও খবির শেখের মধ্য কথা কাটাকাটি হয়।

এক পর্যায়ে ফজলু মাদবর ও তার বাড়ির১৪-১৫ জন লোক দেশীয় অস্ত্র নিয়ে আঃ খবির শেখের বাড়িতে এসে তাদের উপর হামলা করে। এসময় আঃ খবির শেখ (৬০), তাহমিনা (২৫),হোসনেয়ারা পাখি (৪৫),পারভেজ শেখে (৩৫), জসিম শেখে (৩৬),শান্ত (২৫), সিয়াম (১৮),নুরজাহান (৮০) আহত হয়।পরে আহতদের উদ্ধার করে শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

এদের মধ্যে আঃ খবির শেখের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে ,ফরিদপুরে বঙ্গবন্ধু মেডিকেল কলেজে হাসপাতাল,প্রেরন করা হয়।
সেখান থেকে ভোর রাতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে উন্নত চিকিৎসার জন্য রেফার্ড করা হয়।সেখানে আজ মঙ্গলবার বেলা ১১ টার তার মৃত হয়।

তবে এ ঘটনায় রাতেই আঃ খবির শেখের পক্ষে ফজলু মাদবরসহ কয়েকজনকে আসামী করে শিবচর থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়।

নিহতের ছেলে পারভেজ বলেন,আমার বাবা ইফতার শেষ করে নামাজে যাওয়ার পথে হঠাৎ,ফজলু মাদবরের এক দল দেশীয় অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী আমার বাড়ীতে এসে আমার বাবার মাথায় আঘাত করে,ঐ ফজলু সন্ত্রাসী বাহিনীর আমার বাবাকে মেরে ফেলেছে।আমি ওদের ফাঁসি চাই।

নিহতের চাচাতো ভাই সাজাহান শেখ বলেন, আমার বোনের সাথে পাটকাঠি ভাগাভাগি নিয়ে আমাদের মধ্য দ্বন্দ্ব হয়।পরে আমরা আমাদের মেম্বারের কাছে বিষয়টি জানলে তিনি গতকাল বিষয়টি মিমাংসা করে দেন।

বিচারের শেষের দিকে ফজলু মাদবর আর আমার চাচাতো ভাই আঃ খবির শেখের মধ্য কথা কাটাকাটি হলে ফজলু মাদবর ও তার ভাইয়েরা মিলে আমার ভাই সহ ৫/৬ জনকে কুপিয়ে আহত করে।আজ আমার ভাই আঃ খবির শেখ ঢাকায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়। আমি ওদের বিচার চাই।

শিবচর থানায় ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মিরাজ হোসেন বলেন,সংঘর্ষেের ঘটনায় ওই এলাকায় পুলিশ পাঠানো হয়েছে।গত রাতে এ ঘটনায় একটি মামলা হয়েছে।

মীর এম ইমরান, ষ্টাফ রিপোর্টার- মাদারীপুর
০১৯১৪১৪৫৬১৫
২০০৪২০২১