তজুমদ্দিনে গৃহবধুর রহস্যজনক মৃত্যু ॥ স্বামীর পরিবার পলাতক

প্রকাশিত: ৭:৩৫ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১১, ২০২১

তজুমদ্দিন (ভোলা) সংবাদদাতা ঃ ভোলার তজুমদ্দিনের শম্ভুপুর ইউনিয়নের নতুনহাট বাজার এলাকার বাবুল মহাজন বাড়ীর স্বামীর ঘর থেকে এক গৃহবধূর গলায় ফাঁস দেয়া মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহত গৃহবধূর নাম আকলিমা বেগম (২৭)। আকলিমার পরিবারের অভিযোগ, স্বামী ও শ্বশুর বাড়ির লোকজন তাকে হত্যা করেছে।
বৃহস্পতিবার (১১ ফেব্রুয়ারী) সকালে ঘরের মেঝেতে মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে বাড়ির লোকজন পুলিশকে খবর দেয়। দুপুরে পুলিশ গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ভোলা মর্গে পাঠিয়েছে।
নিহতের বাবা আজিজল হক জানান, ৯ বছর আগে তার মেয়ের সঙ্গে শম্ভুপুর ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের নতুনহাট বাজার এলাকার মোঃ বাবুল মহাজনের ছেলে মো: ফরহাদ এর সাথে আকলিমার বিয়ে হয়। তাদের ২টি সন্তান রয়েছে। বিয়ের পর থেকে ফরহাদ যৌতুকের জন্য আকলিমাকে মারধর করতো। এ নিয়ে বেশ কয়েকবার স্থানীয়ভাবে সালিশ-মীমাংসায় বসলেও নির্যাতন বন্ধ হয়নি।
আজিজল হকের অভিযোগ, সর্বশেষ ৯ ফেব্রুয়ারি একই ঘটনায় স্বামী ফরহাদ আকলিমাকে মারধর করে। পরদিন বুধবার এ নিয়ে স্থানীয়ভাবে সালিশ বৈঠক হয়। পরে বৃহস্পতিবার সকালে তার গলায় ফাঁস দেয়া মরদেহ পাওয়া যায়। ফরহাদ ও তার পরিবারের লোকজন আকলিমাকে হত্যা করে গলায় রশি বেঁধে মরদেহ ঘরের ভিতরে রেখে পালিয়ে গেছে।
তজুমদ্দিন থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এস এম জিয়াউল হক জানান, স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে আমরা লাশ উদ্দার করে থানায় নিয়ে আসি । ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ ভোলা সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। নিহতের স্বামী, শ্বশুর, শ্বাশুড়িসহ পরিবারের সদস্যরা পলাতক রয়েছেন। ও সি আরো জানান এটি হত্যা না কি আত্মহত্যা তাহা ময়নাতদন্তের রিপোর্ট আসলে নিশ্চিত হতে পারবো।

তজুমদ্দিন (ভোলা) সংবাদদাতা , তারিখ: ১১-০২-২০২১ ইং