দৌলতখানের জয়নাল আবেদীন আালীম মাদ্রাসার সহকারি শিক্ষক দ্বারা মাদ্রাসার অধ্যক্ষ লাঞ্চিত হওয়ার অভিযোগ।

প্রকাশিত: ৫:২৭ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ৭, ২০২১

হাছিব ইশতিয়াক দৌলতখান উপজেলা প্রতিনিধি।

মাদ্রাসার অধ্যক্ষ বলেন গত মঙ্গলবার মাদ্রাসার শিক্ষক মোহাম্মদ হাবিবুল্লাহ সাহেবের মাদ্রাসায় উপস্থিত থাকার কথা ছিল কিন্তু সে মাদ্রাসায় অসে নি।অধ্যক্ষ বলেন সেই দিনই আমি ওআমার সহকারী শিক্ষক মাদ্রাসার ছাত্র ছাত্রী সংগ্রহ করতে বের হই পথে তার সাথে হঠাৎ দেখা হলে সে আমাকে দেখে দৌড়ে পালিয়ে যায়। পারের দিন সে মাদ্রাসায় আসলে আমি তাকে জিজ্ঞেস করলাম কেন দৌড়ে পালালেন আমাকে দেখে।এ কথা বলায় সে আমাকে গালি গালাস করে। আমি আমার এক শিক্ষক কে বললাম ওনাকে থামও।ওনি আরও উত্তেজিত হয়ে জুতা নিলেন আমাকে মারার জন্য।তখন অন্যান্য শিক্ষকরা তাকে সরিয়ে নিয়ে যায়। পারে আমি বাসায় চলে যাই।পরে আমি জানতে পারি ফেসবুক সহ বিভিন্ন গণমাধ্যমে আমার নামে উল্টো অভিযোগ করেছে সহকারী শিক্ষক হাবিবউল্লাহ। বলে রাখা আমার মাদ্রাসার সহকরি শিক্ষকদের সাথে মাদ্রাসার বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আমার বিরোধ রয়েছে। এ বিষয়ে আগের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অবহিত রয়েছেন। এ ছাড়া মোহাম্মদ হাবিবুল্লাহর নিজে লেখা তার মাথায় সমস্যা রয়েছে বলে তিনি মাদ্রাসায় লিখত ভাবে জানান।