সিলেটের জৈন্তাপুর সীমান্ত হতে ১৬শত বস্তা মটরশুটি সহ ৮০টি নৌকা অাটক করেছে বিএসএফ

প্রকাশিত: ৮:৩২ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ৯, ২০২০

স্টাফ রিপোর্টার সিলেট থেকে:
সিলেটের জৈন্তাপুর উপজেলার
১২৮৬ পিলার এলাকা থেকে আজ মঙ্গলবার (৮ ডিসেম্বর) সকালে ৮০টি বাংলাদেশি নৌকা ভর্তি মটরশুটি আটক করেছে বিএসএফ। এগুলোর আনুমানিক মূল্য ৭০ লাখ টাকা।

জানা গেছে, চোরাকারবারিরা দীর্ঘদিন থেকে জৈন্তাপুর উপজেলার বিভিন্ন সীমান্ত দিয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সোর্সদের সহায়তায় বাংলাদেশ থেকে ভারতে মটরশুটি পাচার করে আসছে। বিএসএফ বার বার সর্তক করে দেওয়ার পরও চোরাকারবারিরা দেদারছে ভারতে মটরশুটি পাচার করছে। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৬টায় ১২৮৬ পিলার এলাকায় বাংলাদেশের আসামপাড়া ও ভারতীয় লকর নামক স্থানে প্রায় ২ শতাধিক বিএসএফ সদস্য অতর্কিত অভিযান পরিচালনা করে মটরশুটি বোঝাই ৮০টি নৌকা ধরে নিয়ে যান। বিএসএফ’র এ অভিযানে কোনো বাংলাদেশি আটক হওয়ার খবর পাওয়া যায়নি।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় শ্রমিকরা জানান, বিএসএফ বার বার বাধা দিয়েছে। কিন্তু চোরাকারবারিরা বাধা উপেক্ষা করে আমাদের দিয়ে ভারতে মটরশুটি বোঝাই নৌকা প্রবেশ করায়। আমরা কোনোমতে প্রাণে রক্ষা পেলেও মটরশুটি বোঝাই নৌকা রক্ষা করা সম্ভব হয়নি। নৌকা ও মটরশুটির আনুমানিক মূল্য ৭০ লাখ টাকা হবে। সীমান্ত এলাকায় এটি সাম্প্রতিককালে বিএসএফ’র সবচেয়ে বড় অভিযান। অভিযানের পর থেকে ১২৮৬, ১২৮৭, ১২৮৮, ১২৮৯, ১২৯০, ১২৯১ ও ১২৯২ আন্তর্জাতিক পিলার এলাকায় নজরদারি বৃদ্ধি করেছে বিএসএফ।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ৪৮ বিজিবি’র ডিবির হাওর বিশেষ ক্যাম্প থেকে বলা হয়, আমাদের ক্যাম্প এলাকার আওতায় কোনো প্রকার চোরাকারবার হচ্ছে না। চোরাকারবার রোধে আমরা কঠোর অবস্থানে রয়েছি। বিএসএফ যে স্থানে অভিযান পরিচালনা করেছে (১২৮৬ পিলার আওতাভুক্ত), সে এলাকাটিতে ১৯ বিজিবি দায়িত্বপালন করছে।

১৯ বিজিবির জৈন্তাপুর ক্যাম্পের ক্যাম্প কমান্ডার (নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক) বলেন, লোকমুখে বিএসএফ’র অভিযানে নৌকা বোঝাই মটরশুটি আটকের কথা শুনেছি। সঠিক কিছু আমাদের জানা নেই। এ বিষয়ে কেউ আমাদেরকে কিছু বলেনি।