ভোলায় ব্যাংকের হাট হাই স্কুল কতৃপক্ষ শিক্ষার্থীদের কাছে অতিরিক্ত ফি আদায়ের অভিযোগ

প্রকাশিত: ৬:৪৯ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ৭, ২০২০

জুয়েল,ভোলা প্রতিনিধি:
ব্যাংকের হাট কো-অপারেটিভ হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক ইসমাইল এর নির্দেশে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে এসাইনমেন্ট জমা নেওয়ার সময় অতিরিক্ত ফি আদায়ের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

ওই স্কুলের একাধিক শিক্ষার্থী ও অভিভাবক জানান, ২০২০ সালের জানুয়ারি মাসে বই উৎসবের সময় প্রত্যেক শিক্ষার্থী সেশন ফি বাবদ ৫০০ টাকা করে স্কুল কতৃপক্ষকে জমা দিয়ে বই সংগ্রহ করেন। কিন্তু শিক্ষা মন্ত্রানাল ঘোষণা দেন সেশন ফি নিলে বেতন সাথে সমন্বয় করে নিতে হবে অথবা ফেরত দিবে। কিন্তু শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নির্দেশ উপেক্ষা করে স্কুল কর্তৃপক্ষ সেশন ফি বেতন থেকে বাদ না দিয়ে এক বছরের বেতন সম্পূর্ণ শিক্ষীর্থীদের কাছে আদায় করেন। পুনরায় আবার সেশন ফি ও বেতন বাবদ ৮ শত টাকা থেকে শুরু করে ১২ শত টাকা পর্যন্ত আদায় করার অভিযোগ করেছে ব্যাংকের হাট কো-অপারেটিভ হাই স্কুলের শিক্ষার্থীরা। স্কুল কর্তৃপক্ষের ধার্যকৃত টাকা শিক্ষার্থীরা দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে তাদের এসাইনমেন্ট জমা না নেওয়ারও অভিযোগ রয়েছে স্কুল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে। এ বিষয়ে একাধিক স্কুলের শিক্ষার্থীরা সাংবাদিকদের কাছে ভিডিও বক্তব্য দেওয়ার পর স্কুল কর্তৃপক্ষ ওই ওই শিক্ষার্থীদের ডেকে নিয়ে ভিডিও বক্তব্য দেওয়ার কারনে স্কুল থেকে বের করে দেওয়ার হুমকি দেওয়া হয়েছে বলে জানা যায়।

এ ঘটনায় ব্যাংকেরহাট কো-অপারেটিভ হাই স্কুল প্রধান শিক্ষক মো.ইসমাইল হোসেন এর সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করে তাকে না পাওয়ায় একাধিকবার মোবাইল ফোনে কল করা হলো তিনি ফোন রিসিভ না করায় তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

এবিষয়ে ভোলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মো. জিয়াদ হাসান জানান, সরকারী নির্দেশনা অনুযায়ী স্কুল কর্তৃপক্ষ শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে শুধু বেতন নিতে পারবে অন্য কোনো টাকা-পয়সা নিতে পারবে না। বিভিন্ন অজুহাতে যদি শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে কোন প্রতিষ্ঠান বেশি টাকা নিয়ে থাকে প্রমান পেলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।