বান্দরবানে রেডক্রিসেন্ট সোসাইটির বার্ষিক সাধারণ সভা ও প্রায় ৩কোটি টাকার উন্নয়ন উদ্বোধন- পার্বত্য মন্ত্রী বীর বাহাদুর।

প্রকাশিত: ১০:১৪ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ৬, ২০২০

বান্দরবান প্রতিনিধি:
বাংলাদেশ রেডক্রিসেন্ট সোসাইটি’ বান্দরবান ইউনিট এর বার্ষিক সাধারণ সভা(এজিএম)-২০২০ ও বান্দরবান ইউনিট ভবন এর প্রায় ৩কোটি টাকার উন্নয়ন কাজের ভিত্তি প্রস্তর ও উদ্বোধন করলেন পার্বত্য মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এম.পি। ৪ডিসেম্বর শুক্রবার বিকাল সাড়ে ৪টায় মন্ত্রী এসব উন্নয়ন কাজের ভিত্তি প্রস্তর ও উদ্বোধন শেষে বাংলাদেশ রেডক্রিসেন্ট সোসাইটি’ বান্দরবান ইউনিট এর বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পার্বত্য মন্ত্রী বীর বাহাদুর । বান্দরবান রেডক্রিসেন্ট সোসাইটি বান্দরবান ইউনিট এর সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ক্য শৈহ্লা এর সভাপতিত্বে মেঘলাস্থ রেডক্রিসেন্ট সোসাইটির অফিস প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী বলেন, সরকার পার্বত্য চট্টগ্রামে উন্নয়নে খুবই আন্তরিক। পার্বত্য চট্টগ্রামে জনগোষ্ঠির উন্নয়নে বর্তমান প্রধান মন্ত্রী এতদাঞ্চলে সকল সেক্টরে ব্যাপক উন্নয়ন কর্মযজ্ঞ চালিয়ে যাচ্ছেন। সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক মো: দাউদুল ইসলাম, পুলিশ সুপার জেরিন আখতার, ইউনিট কার্য নির্বাহী কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুর রহিম চৌধুরী, পৌর মেয়র মোহাম্মদ ইসলাম বেবী, রেডক্রিসেন্ট সোসাইটির সেক্রেটার ও ডেলিগেট অমল কান্তি দাশ, সিভিল সার্জন ডা: অং শৈ প্রু,পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড বান্দরবান ইউনিট এর নির্বাহী প্রকৌশলী আবু বিন মুহাম্মদ ইয়াছির আরাফাত, জেলা পরিষদের সদস্য মোজাম্মেল হক বাহাদুর, তিং তিং ম্যা, সদস্য ফাতেমা পারুল, সদস্য কাঞ্চন জয় তংচঙ্গ্যা, সদস্য ফিলিপ ত্রিপুরা,লামা উপজেলা চেয়ারম্যান মো: মোস্তাফা জামাল, রোটারিয়ান আনিসুর রহমান সুজন, রোটারিয়ান মহিউদ্দীন, রেডক্রিসেন্ট সোসাইটির কার্যনিবাহী সদস্য মোঃ খলিলুর রহমান,গাব্রিয়েল ত্রিপুরা,নাজমুল হোসেন বাবলু,ইউনিট লেভেল অফিসার মোঃ মোশারেফ হোসেন, যুব প্রধান মনিরুল ইসলাম, বাপ্পি, ফয়সাল বিন মোস্তাফিজ,সায়মা আক্তার শর্মী প্রমূখ।
বাংলাদেশ রডেক্রিসেন্ট সোসাইটি বান্দরবান ইউনিট ভবন উধ্বমূখী সম্প্রসারণ ও রাস্তা সংস্কার কাজের ভিত্তিপ্রস্থর এবং রেডক্রিসেন্ট সোসাইটির ডাইনিং হল, কনফারেন্স হল উদ্বোধন করেন পার্বত্য মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি। বার্ষিক সাধারণ সভা শেষে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।