চরফ্যাশনে সাবেক চেয়ারম্যানের ছেলে ছিনতাইয়ের অভিযোগে আটক

প্রকাশিত: ৭:৩৯ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৪, ২০২০

আমিনুল ইসলাম, চরফ্যাশন প্রতিনিধি৷৷

ভোলার চরফ্যাশন উপজেলা আছলামপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান বশির আহমেদ মিয়ার ছেলে সুলতান হেলাল উদ্দিন জামালকে মোবাইল ও টাকা ছিনতাইয়ের অভিযোগে আটক করেছেন চরফ্যাশন থানা পুলিশ৷

মঙ্গলবার (২৪ নভেম্বর) সকাল ৯ টার সময় আছলামপুর ইউনিয়ন খোদেজাবাগ গ্রামে এই ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, একই এলাকার আবদুর রব হাওলাদারের ছেলে মোঃ রুবেল (২২) স্থানীয় সুলতান মিয়ার হাট থেকে মটর সাইকেল যোগে উপজেলা শহরের উদ্দ্যেশে রওয়ানা হয়। রুবেল সাবেক চেয়ারম্যান বশির মিয়ার বাড়ির সামনে গেলে, জামাল তার পথরোধ করে তার কাছ থেকে দুটি মোবাইল ও নগদ বিশ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়। রুবেল প্রতিবাদ করলে তাকে এলোপাতাড়ি মারধর করে৷ মার খেয়ে রুবেল মোবাইল এবং টাকার জন্য দাড়িয়ে থাকলে জামাল তার বাড়ি থেকে ধারালো দেশীয় অস্ত্র নিয়ে তাকে মেরে ফেলার জন্য আসে৷ রুবেলের চিৎকার শুনে এলাকার লোকজন ছুটে এসে জামালকে দাওয়া দিলে, দৌড়ে নিকটস্থ কাটাবুনিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের টয়লেটে ঢুকে ভিতর দিয়ে দরজা লক করে দেয়৷ এলাকার লোকজনও টয়লেটের দরজা বাহির থেকে আটকে রেখে চরফ্যাশন থানা পুলিশকে খবর দেন৷ প্রায় দের ঘন্টা পর পুলিশ কর্মকর্তা নাজমুল ইসলাম এর নেতৃত্বে চার সদস্যের একটি দল ঘটনাস্থলে পৌছে জামালকে টয়লেট থেকে উদ্ধারের পর আটক করে থানায় নিয়ে আসেন৷ জামালের বিরুদ্ধে মাদক সেবন, বিক্রি ও ছিনতাইয়ের একাধিক অভিযোগ পাওয়া গেছে৷

এ বিষয়ে মোঃ রুবেল জানান, আমি দোকানের মালামাল ক্রয় করতে চরফ্যাশন বাজার যাওয়ার পথে এ ঘটনা ঘটেছে৷ আমার থেকে ছিনিয়ে নেয়া মোবাইল এবং টাকা থানা পুলিশ উদ্ধার করতে পারেনি৷ আমাকে মারধরের পরেও দাঁড়িয়ে থাকলে, জামাল টাকা ও মোবাইল তার বাড়িতে রেখে আবার অস্ত্র নিয়ে আমাকে হত্যার উদ্দেশ্যে আসে৷ এরপর স্থানীয় জনগণের ধাওয়া খেয়ে আটক হন৷ জামালের বিরুদ্ধে চরফ্যাশন থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে৷

চরফ্যাশন থানা পুলিশের এসআই নাজমুল ইসলাম জানান, ঘটনাস্থল থেকে জামালকে ও তার সাথে থাকা একটি দা উদ্ধার করা হয়৷ অভিযুক্ত জামাল থানায় আছে৷