সাংবাদিক এম, এ রহিম রাজকে প্রাণনাশের হুমকি ডাকাত আছদ্দরআলীর মোটু ফোনে হুমকি।

প্রকাশিত: ৭:১৯ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ২১, ২০২০

নিজস্ব প্রতিবেদক
বাংলার বারুদ পত্রিকায় প্রকাশিত নিউজ সিয়ার করায় সাংবাদিক রহিমের উপর ডাকাত আছদ্দরের হুমকি।

নিজেস্ব প্রতিবেদন,
সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলার ২নং পশ্চিম জাফলং ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ড ছোটখেল গ্রামের বাসিন্দা আব্দুর রহিম।
তিনি কর্মজীবনের পাশাপাশি মানবাধিকার রক্ষা ও লঙ্ঘন নিয়ে সমাজে সমাজ সেবা করার জন্য, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের অনুমোদিত মানবাধিকার প্রতিষ্ঠান হিউম্যান রাইটস্ রিভিউ সোসাইটির কেন্দ্রীয় সদস্য হয়ে উনার বসবাসরত এলাকার দায়ীত্ব নিয়েছেন।
তিনি জাতির দর্পণ হয়ে দেশের কল্যাণে সাংবাদিকতার দায়ীত্ব নিয়েছেন,
তিনি জনপ্রিয় অনলাইন পত্রিকা আওয়ার কন্ঠের গোয়াইনঘাট উপজেলা(সিলেট) এর একজন প্রতিনিধি হিসেবে দায়ীত্ব পালন করছেন।

সাংবাদিক রহিম জানান গত ১৪অক্টোবরে অনলাইন বাংলার বারুদ পত্রিকায় গোয়াইনঘাট উপজেলাধীন পরগনা বাজার সংলগ্ন এলাকার নদী থেকে বালু উত্তোলনকারী চক্তের একটি নিউজ দেখতে পান এবং পরে তিনি এটা কে সিয়ার করেন।
সাংবাদিক রহিম জানান ২০/১০/২০২০ মঙ্গলবার সকালে এই নিউজ কে কেন্দ্রকরে ছাতার গ্রামের বাসিন্দা ডাকাত আছদ্দর ও তার সঙ্গপঙ্গ মিলে তাকে ফোন দিয়ে প্রানে মারার হুমকি দেয়।

সাংবাদিক রহিম বারবার বিনয়ের সাথে তাদের বলতে থাকেন নিউজটা আমি করিনি নিউজা বাংলার বারুদ পত্রিকায় প্রকাশিত হয়েছে।
কিন্তুু কে শুনে কার কথা!! রহিম কে হুমকি ও অশ্লীল ভাষায় গালাগালি দিয়ে ডাকাত আছদ্দর বলেন।
এই হুন, ফুরান দা থইদিছলাম এবলা আমার তর খারণে বার খরছি তর মত ইতা বহুত বেটাইন আমি আছদ্দরর হাতে মরছইন তুইও মরবে।

বাংলার বারুথে প্রকাশিত নিউজ সকলের অবগতির জন্য হুবহু তুলে ধরা হইলো।

Banglar Barud
আজ মঙ্গলবার, ২০শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

HOME
শীর্ষ সংবাদ
জাতীয়
আন্তর্জাতিক
রাজনীতি
সারাদেশ
সিলেট বিভাগ
গণমাধ্যম
অপরাধ
আদালত
উপজেলা সংবাদ
কলাম
গোয়াইনঘাট পরগনা বাজারে বালু খেকোদের কান্ড, হুমকির মুখে ব্রিজ ও কলেজ
প্রকাশিত : ১৬ অক্টোবর, ২০২০, ৯:০৮ অপরাহ্ণ

গোয়াইনঘাট প্রতিনিধি :: সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলার পশ্চিম জাফলং ইউনিয়নে পরগনা বাজার উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের পাশে ব্রিজের নিচ থেকে অবাধে বালু উত্তোলন করছে একটি প্রভাবশালী চক্র। এই চক্রের সদস্যরা বর্ষার শুরু থেকে ইউনিয়নের নদী থেকে বালু উত্তোলন করছে। কিন্ত কেউ তাদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করছে না। বর্তমানে পরগনা বাজার উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের পাশে ব্রিজের নিচ থেকে ড্রেজার দিয়ে বালু উত্তোলন করছেন তারা। যার ফলে হুমকির মুখে রয়েছে ব্রিজ ও কলেজ।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, পশ্চিম জাফলং ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম এর নিকট থেকে বালু মহালের ইজারা নিয়েছেন একটি চক্র। ইজারা নেওয়ার পর থেকে শুরু করেছে তাদের ধ্বংস লীলা। বর্তমানের পরগনা বাজার ব্রিজ সংলগ্ন এলাকা থেকে ড্রেজার দিয়ে প্রতিদিন রাতে বালু উত্তোলন করছেন। বালু উত্তোলনের নেতৃত্ব দিচ্ছেন পরগনা বাজার এলাকার বাসিন্ধা লুৎফুর, আলমগীর, সেলিম ও আছদ্দরসহ একটি চক্র।

এলাকার কোন এই চক্রের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করার সাহস পায়নি। যার ফলে তারা দিন দিন বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। পরগনা বাজার উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের পাশে ব্রিজকে এই চক্রের কবল রক্ষা করতে এবং ড্রেজার দিয়ে বালু ময় য়