পাবনার মাসুমদিয়া ইউনিয়নে ড্রেজার মেশিনে অবৈধ্য ভাবে বালু উত্তেলন ॥ ফসলী জমি ভেঙ্গে একাকার

প্রকাশিত: ৭:৫৬ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ১৯, ২০২০

শিহাব অাহম্মেদ-স্টাফ রিপোর্টারঃ
পাবনার বেড়া উপজেলার আমিনপুর থানার মাসুমদিয়া ইউনিয়নের যদুপুরের কোল থেকে অবৈধভাবে দীর্ঘদিন ধরে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে বিপুল টাকার মালিক হয়েছে বালু দস্যুরা।এ কারণেই দিন দিন বেপরোয়া হয়ে উঠছে বালু দস্যু রা। বালু দস্যুরা ড্রেজার মেশিন বসিয়ে কোল থেকে প্রতিদিন বালু উত্তোলন করছে।

এতে ওই এলাকার ফসলি জমি হুমকির মুখে পড়েছে। এলাকাবাসী এ ব্যাপারে প্রশাসনের সংশ্লিষ্ট সবার কঠোর হস্তক্ষেপ কামনা করছেন। খোঁজ নিয়ে জানা যানা যায় যদুপুর গ্রামের ফজলু মোল্লা, মাজেদ খন্দকার গং ১টি ড্রেজার মেশিন বসিয়ে প্রায় ২ বছর ধরে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে যাচ্ছে। প্রতিদিন তারা বালু উত্তোলন ও বিক্রি করে লাভবান হলেও এলাকার ফসলি জমি হুমকির মুখে পড়ছে। এতে কোল ও ফসলি জমির ভাঙ্গন অব্যাহত রয়েছে।
যদুপুর গ্রামের বাসিন্দা জাদু মৃধা বলেন, বালু দস্যুরা এলাকার প্রভাবশালী হওয়ায় কেউ তাদের বাধা দেয়ার সাহস করে না। এরা ড্রেজার মেশিন বসিয়ে কোল থেকে বালু উত্তোলন করছে, এতে কোলের গভীরে গর্তের সৃষ্টি হওয়ায় যদুপুর গ্রামের শত শত বিঘা আবাদি জমি ভাঙ্গনের মুখে পড়ছে। ভুক্তভোগীরা বলেন, ড্রেজিং পদ্ধতিতে বালু উত্তোলন করা হলে ফসলি জমি কোলে বিলীন হয়ে যাবে। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার ২০১০ সালে বালু উত্তোলন নীতিমালায় যন্ত্রচালিত মেশিন দ্বারা ড্রেজিং পদ্ধতিতে বালু উত্তোলন নিষিদ্ধ করা হলেও সরকারি ওই আইন অমান্য করে নির্বিঘ্নে যদুপুর গ্রামের ফজলু মোল্লা সহ অনেকেই ড্রেজার মেশিন বসিয়ে কোল থেকে প্রতিদিন অসংখ্য বালু উত্তোলন করে যাচ্ছে।

এ ব্যাপারে বেড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার আসিফ আমান সিদ্দিকী বলেন, শীঘ্রই অবৈধভাবে বালু উত্তোলনকারীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।