ভোলা-চরফ্যাশনে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ কমিটির সমন্বয় সভা

প্রকাশিত: ৭:২৪ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১৫, ২০২০

আমিনুল ইসলাম,
চরফ্যাশন প্রতিনিধি

চরফ্যাশন উপজেলা প্রশাসন ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠান কোস্ট ট্রাস্টের উদ্যোগে উপজেলা পর্যায়ে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ কমিটির সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৫অক্টোবর) চরফ্যাশন উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তার কার্যালয়ে সকাল ১০টায় উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তার মোঃ রুহুল আমিনের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন উপজেলা করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ কমিটির সদস্য সচিব ও উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা, ডাঃ শোভন বসাক, চরফ্যাশন থানার ওসি মনির হোসেন, কোস্ট ট্রাস্টের ভোলা জেলার সহকারি পরিচালক রাশেদা বেগম, সিএফটিএম প্রকল্পের চরফ্যাশন উপজেলা জলবায়ু ফোরামের নির্বাহি সদস্য পৌর কাউন্সিলর আকতারুল আলম সামু, সিনিয়র সহসভাপতি মনির আসলামি, সম্পাদক সামসুন্নাহার স্নিগ্ধা, নির্বাহি সদস্য সাবিনা ইসলাম রুপা।
সভার অন্যান্যদের মধ্যে শিক্ষা কর্মকর্তা, প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা, সমাজ সেবা কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন৷

সভায় সমাপনী বক্তব্যে উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা বলেন, কমিটির পক্ষ থেকে আগামীতে শীতেআবারও স্বাস্থ্য বিধি যাহাতে সবাই মেনে চলে এ পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে। এছাড়াও করোনাকালে জাতীয় অর্থনৈতিক সংকট মোকাবেলায় সকলকে সহযোগিতার হাত বাড়াতে হবে।
সভার সঞ্চালক রাশিদা বেগম শুভেচ্ছা বক্ত্যের মাধ্যমে সমন্বয় সভার উদ্দেশ্যে বলেন, উপজেলা করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ কমিটির কার্যক্রমকে আরও সক্রিয়করণ ও সচেস্ট ভূমিকা নিতে হবে। কোস্ট ট্রাস্ট করোনাকালীন সময়ে নানাবিধ কার্যক্রম তুলে ধরার পাশাপাশি বর্তমানে জনসচেতনতা সৃষ্টির জন্য ভোলা জেলার জনাকীর্ণ হাট বাজার গুলোতে মাইকিং, লিপলেট বিতরণ, কমিউনিটি নারীদেরকে সচেতনতায় স্বাস্থ্য বিধি মেনে উঠান বৈঠকের মাধ্যমে জনসচেতনতামুলক প্রচারাভিযান অব্যাহত রেখেছেন৷

ডাঃ শোভন বসাক বলেন, এ সমন্বয় সভায় উপজেলা পর্যায়ের করোনা ভাইরাস কমিটির বিগতদিনের সার্বিক কার্যক্রমের অগ্রগতি নিয়ে সভায় বিস্তারিতভাবে উপস্থাপন করেন।
তিনি আরও বলেন, আমাদের প্রতিটি কমিউনিটি ক্লিনিক, স্বাস্থ্য কর্মী নিয়মিত স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলতে জনগনকে সচেতন করে যাচ্ছে। কিন্তু হাসপাতালে সেবাগ্রহিতাদের বাধ্যতামুলক মাস্ক ব্যবহার নিশ্চিত করা যাচ্ছেনা। করোনা ভাইরাস পজেটিভ মানুষকে হাসপাতালে অক্সিজেন দিয়ে সেবা নিশ্চিত করতে সমস্যায় পড়তে হয়। কারন পর্যাপ্ত অক্রিজেন ব্যবস্থাপনা না থাকায় তাদের সেবা নিশ্চিত করা যাচ্ছেনা৷

জলবায়ু ফোরামের সিনিয়র সহ-সভাপতি, মোঃ মনির আসলামী বলেন, আমরা করোনা মহামারির শুরু হতে মাঠ পর্যায়ে কাজ করছি। যা এখনও চলমান রয়েছে, আগামীতেও থাকবে। আমরা প্রশাসনের প্রয়োজনে যেকোনো সময়ে তাদের কাজে সহায়তা করতে সর্বদা প্রস্তুত রয়েছি।