ধর্ষণের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদন্ড মন্ত্রিসভায় অনুমোদন করায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনাকে জাতীয় সাংবাদিক ঐক্য ফোরাম ভোলা জেলার বোরহান উদ্দিন উপজেলা কমিটির পক্ষ থেকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি

প্রকাশিত: ১২:৪৭ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১৪, ২০২০

১২ অক্টোবর ২০২০ খ্রিঃ (সোমবার) ধর্ষণের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদন্ডের বিধান রেখে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের সংশোধনী প্রস্তাব অনুমোদন করায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনাকে ভোলা ২ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য জনাব আলি আজম মুকুল এমপি মহোদয়ের পক্ষ থেকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাই।

যেহেতু সংসদ অধিবেশন বসছে না, তাই ১৩ অক্টোবর (মঙ্গলবার) মহামান্য রাষ্ট্রপতির অধ্যাদেশ জারীর মাধ্যমে এটি কার্যকর করা হবে মর্মে জানান আইনমন্ত্রী।
নারী ও শিশু আইনের ৯(১) উপধারায় ধর্ষণের সাজা ছিল যাবজ্জীবন কারাদণ্ড, এটি সংশোধন করে মৃত্যুদন্ডের প্রস্তাব আজ মন্ত্রিসভায় উত্থাপন করেন আইনমন্ত্রী।

এখন থেকে ধর্ষণের শাস্তি হবে মৃত্যুদন্ড অথবা যাবজ্জীবন কারাদণ্ড। সেই সঙ্গে ৯(৪) উপধারায় সংশোধনও ১১(গ) উপধারা আপোষযোগ্য করার প্রস্তাব মন্ত্রিসভায় উত্থাপিত হয়। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে মন্ত্রিসভার বৈঠকে আইনের সকল সংশোধনীর অনুমোদন দেয়া হয়। এর ফলে বিদ্যমান নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের সংশ্লিষ্ট ধারাগুলোয় সংশোধনী আনা হবে।

ধর্ষণের বিরুদ্ধে সাধারণ মানুষের দাবীর সমর্থনে ধর্ষকের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদন্ডের আইন নারী ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।