রাজাপুরে প্রতিপক্ষের হামলায় শিক্ষক আহত! নগদ টাকা ও সাইকেল উধাও

প্রকাশিত: ৭:৪৩ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৭, ২০২০

রাজাপুর প্রতিনিধি: ঝালকাঠির রাজাপুরে জমি নিয়ে বিরোধের জেরে প্রতিপক্ষের হামলায় মাওলানা মো: জালাল উদ্দিন (৩৫) নামের এক শিক্ষক গুরুতর রক্তাক্ত জখম হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। শনিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) রাত ৮ টার দিকে উপজেলার বাদুরতলা মোড় এলাকায় সেটেলমেন্ট অফিসের সামনে এ ঘটনা ঘটে। আহত জালাল উদ্দিন বর্তমানে রাজাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। জালাল উপজেলা বাগড়ী এলাকার আজিজিয়া নুরানী মাদ্রাসার শিক্ষক ও দক্ষিন রাজাপুর এলাকার আ: হক ফরাজীর ছেলে। আহত জালাল জানান, প্রতিপক্ষরা দীর্ঘদিন যাবৎ জোড় পূর্বক তাদের জমি দখল করে আসছে। এমনকি তার বৃদ্ধ বাবাকে প্রতিপক্ষরা মারধর করে। এ ঘটনায় ঝালকাঠি আদালতে ফৌজদারী ও দেওয়ানী মামলা চলমান রয়েছে। শনিবার সন্ধ্যায় প্রতিপক্ষদের সাথে মিমাংশার জন্য স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিরা শালিশ বৈঠকে বসেন। এ সময় জালালকে আদালতে চলমান মামলা উত্তোলনের জন্য চাপ প্রয়োগ করলে তাতে জালাল রাজি না হওয়ায় প্রতিপক্ষরা একই এলাকার মৃত. আ: রশীদ ফরাজীর ছেলে আ: জলিল ওরফে জলমিয়া, চান মিয়া, ফারুক ও লাল মিয়া এবং তাদের আত্তীয় হেমায়েত উদ্দিন সিকদার মিলে শালিসগণের সামনে হামলা চালায় এতে জালাল গুরুতর রক্তাক্ত জখম হয়। এ সময় হামলাকারীরা জালালের পকেটে থাকা নগদ ১০ হাজার টাকা ও পাশে রাখা বাইসাইকেল নিয়ে যায়। আহত অবস্থায় জালালকে উদ্ধার করে রাজাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসেন। বর্তমানে জালাল সেখানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
এ বিষয়ে শালিসগণের মধ্যে আবু হানিফ জানান, তাদের সামনে জালালের উপড় হামলা চালায়নি বরং নামাজ পরার উদ্দেশ্যে বাইসাইকেল যোগে যাওয়ার সময় জালালের উপড় হামলা চালায়।
এ বিষয়ে অভিযুক্তদের মধ্যে আ: জলিল ওরফে জলমিয়া অভিযোগ অস্বিকার করে জানান, জালালের সাথে শুধু কথা কাটাকাটি হয়েছে এবং সামান্য হাতাহাতি হয়েছে। তিনি আরও বলেন টাকা ও সাইকেল আমরা কিছুই নেইনি।
রাজাপুর থানা পুলিশ জানায়, এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ পাইনি, অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।