তিন লঞ্চের প্রতিযোগিতায় ৩০০টাকা ভাড়া মাএ ৫টাকা,খুশি যাএীরা।

প্রকাশিত: ১০:৩৩ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৩, ২০২০

মোহাঃ তম্ময় তজুমদ্দিন প্রতিনিধি।
দ্বীপরাণী ভোলার থেকে অন্যজেলায় যাতায়াতে একমাএ মাধ্যম নদীপথ, আর প্রতিদিন নদীপথ পাড়ি দেন এই অঞ্চলেন মানুষ।

চরফ্যাশনের বেতুয়া ঘাট থেকে প্রতিদিন এমভি ফারহান, এমভি তারসীফ ও এমভি কর্নফুলি নামক কম্পানীর লঞ্চ গুলো সন্ধ্যায় ঢাকা উদ্দশ্য ছেড়ে যায়।

গত শুক্রবার সরে জমিনে ঘুরে দেখা যায়, ৩ লঞ্চের যাএী উঠানোর প্রতিযোগিতা। এক পর্যায়ে ফারহান-৬ কর্তৃপক্ষ যাএীদের ডেকে ডেকে, ঘাটেই ৫টাকা করে টিকেট কেটে উঠান লঞ্চে। তারসীফ কর্তৃপক্ষ দাবি করেন, ফারহান লঞ্চে যাএীরা উঠতে চাই না, তাই ওরা হঠ্যাৎ করে ভাড়া কমিয়ে যাএী উঠান। আমরাও ১০টাকা করে যাএী থেকে ভাড়া নিয়েছি।

শুক্রবার ঢাকাগামী ফারহান-৬ লঞ্চের যাএী তাকিব বলেন, ৫টাকা দিয়ে ঢাকা যেতে পেরে আমরা খুবই খুশি। কিছুদিন পরপর বাড়তি ভাড়া নেয়, তা না করে যেন লঞ্চ ভাড়া ১০০টাকায় স্থীতিশীল থাকার দাবী করেন।

অন্যদিকে, তজুমদ্দিন লঞ্চ ঘাটে ঘাট করার কথা থাকলেও, লঞ্চ ঘাট করেনি। এতে শহরমূখী মানুষের ভোঙ্গান্তী পোহাতে হয়েছে।