তক্ষক নিয়ে ভয়ঙ্কর, প্রতারণা ,র্যাব-৮ এর হাতে আটক ( ১) একজন।

প্রকাশিত: ৭:৫২ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৩, ২০২০

রিপোর্টার আবু জাফর প্রদীপ কলাপাড়া
থেকে।

র্যাব-৮সিপিসি-১,এর একটি
বিশেষ অভিযানিক দল, ভার-প্রাপ্ত কোম্পানী কমান্ডার সহকারী- পরিচালক জনাব মোঃ রবিউল ইসলাম এর নেতৃত্বে ১২/০৯/২০২০ইং তারিখ দুপুর আনুমানিক ২.০০ ঘটিকার সময় পটুয়াখালী জেলার গলাচিপা থানাধীন এলাকায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে,

অভিযান পরিচালনা করে
একটি বন্যপ্রাণী তক্ষক, উদ্ধার করা হয়।

এ সময় তক্ষক পাচারের অভিযানে মোঃ রাসেল (৪০)পিতা-মৃত আমজাদ হোসেন সাং তুলাতুলি০৫ নংওয়ার্ড১০নং বালিয়াতলী ইউনিয়ন, থানা কলাপাড়া জেলা পটুয়াখালীকে আটক করা হয়।

উল্লখ্য, গুজব প্রচলিত আছে, ক্যান্সারের ঔষধে তৈরিতে তক্ষক ব্যবহার হয়,

তক্ষক ঘরে রাখলে সহসাই ধনী হওয়া যায়,
মাথায় ম্যাগনেট দাম কোটি টাকা,,প্রতিবেশী দেশের এই ব্যাপক চাহিদা,

এমন গুজব ছড়িয়ে সাধারন মানুষের মাঝে তক্ষক নিয়ে দেশজুড়ে সংঘবদ্ব চক্র নিবিচারে তক্ষক ধরছে।

মানুষের করে দেশজুড়ে সংঘবদ্ধ চক্র নির্বিচারে তক্ষক ধরছে

এমন গুজব ছড়িয়ে সাধারন মানুষের মাঝে তক্ষক নিয়ে ব্যাপক আগ্রহ সৃষ্টি করেছে।

এর পর প্রতারণার মাধ্যমে তাদের হাতে কথিত মহামূল্যবান তক্ষক বা এর কঙ্কল গছিয়ে দিয়ে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

একটি ১০-১২ ইঞ্চি তক্ষক এর দাম ধরা হয়েছে ৫০ লক্ষ টাকা।
এই চক্রের ফাঁদে পা দিয়ে সর্বস্ব খুঁইছেন অনেকেই।

আটককৃত তক্ষক পাচারকারী মোঃ রাসেল (৪০) সংঘবদ্ধ তক্ষক দলের সক্রিয় সদস্য।

তিনি অত্যন্ত সুকৌশলে অতি উচ্চ মূল্যের তক্ষক পাচার করে আসছে।

আসামি,কে ও উদ্ধারকৃত তক্ষকসহ
পটুয়াখালী গলাচিপা থানায় হস্তান্তর করা হয়।
এ ব্যাপারে র্যাব বাদী হয়ে গলাচিপা থানায় বিশেষ ক্ষমতা আইন ১৯৭৪ এর(খ)ধারায় একটি মামলা দায়েররে কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।