পটিয়া কর্মরত সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় সভায় এসিল্যান্ড ইনামুল হাসান

প্রকাশিত: ৮:৪৮ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৪, ২০২০

আরিফুল ইসলাম,পটিয়াঃ-চট্টগ্রামের উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্র্যাট ইনামুল হাসান, ৩ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার  দুপুরে পটিয়ার কর্মরত সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে        বলেছেন, মাঠ পর্যায়ে সরকারের একজন প্রতিনিধি হিসেবে সহকারী কমিশনারদের দায়িত্ব হলো রাষ্ট্রের সম্পত্তির সংস্কার,সংরক্ষন ও রক্ষণাবেক্ষণ করা।তিনি  তাঁর কার্যালয়ে গণমাধ্যম কর্মীদের সাথে মতবিনিময় সভায় এসব কথা বলেন। পটিয়ার প্রশাসনিক ঐতিহ্য তুলে ধরে তিনি বলেন, ব্রিটিশ আমল থেকেই  পটিয়া মহাকুমা প্রশাসনিক মর্যাদা লাভ করে। সে কারণে পটিয়ার আলাদা একটা প্রশাসনিক মর্যাদা রয়েছে। পটিয়ার    খাসমহলে অবস্থিত পটিয়া ভূমি অফিস শত বছরের ঐতিহ্য নিয়ে বিশাল জমির উপর প্রতিষ্ঠিত।  প্রায় ৪ একর ভূমির উপর পটিয়া ভূমি অফিস, মসজিদ, পুকুর ও বাড়ি রয়েছে। এইসবের  এলাকাটির সীমানা প্রাচীর না থাকায় অফিস ও বাড়িগুলোতে বসবাসকারী সরকারি কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের পরিবারের জন্য নিরাপদ নয়।নতাছাড়া দক্ষিন,পূর্ব ও পশ্চিমাংশে কিছু এলাকা বেদখল হয়ে গেছে।এমতাবস্থায় পটিয়া ভূমি অফিসের সীমানা প্রাচীর নির্মাণের জন্য উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের কাছে প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে বলে জানান।   ভূমি অফিসের অভ্যন্তরে বাড়িগুলোতে নয়টি পরিবার বসবাস করে। ১৯৯১ সালে এই বাড়িগুলো পরিত্যক্ত ঘোষণা করা হয়েছিল বর্তমানে যারা বসবাস করছেন তারা কেউ এগুলোর জন্য সরকারি কোষাগারে ভাড়া পরিশোধ করেন না।  সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি জানান,  বাড়িগুলো মহকুমা থাকার সময় ম্যাজিস্ট্রেট কলোনী হিসেবে পরিচিতি । এখন তিনি ছাড়াও একজন সিনিয়র সহকারী জজ সেখানে বসবাস করেন। ম্যাজিস্ট্রেট কলোনিতে তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণীর কর্মচারীরা কর্মকর্তাদের সাথে সমমানের বাসায় কিভাবে থাকেন জানতে চাইলে তিনি বলেন তারা আগে থেকেই সেখানে বসবাস করে আসছেন। মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন, প্রবীণ সাংবাদিক হারুনুর রশিদ সিদ্দিকী, আবদুল হাকিম রানা, জাহাঙ্গীর আলম, নুরুল ইসলাম, বিকাশ চৌধুরী, আবেদুজ্জামান আমিরী, সেলিম চৌধুরী, নুর হোসেন,সুজিত দত্ত, রবিউল আলম, গোলাম কাদের, কামরুল, তাপস দে, ফারুক বিঞ্জু সহ আরোও অনেক উপস্থিতছিলেন।     ইনামুল হাসান গণমাধ্যম কর্মীদের সহযোগিতা প্রত্যাশা করে বলেন, কারো সাথে বিরোধ নয়, সুসম্পর্ক নিয়ে থাকতে চান। ভূমি অফিসের যেকোন সংবাদ  করার সময় তার বক্তব্য নেয়ার আহবান জানান।

আরিফুল ইসলাম

পটিয়া চট্টগ্রাম০ ১৮১৫৫৫৭৬১২

———————————