পটিয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় দুই  স্কুল শিক্ষার্থীর মর্মান্তিক মৃত্যু এলাকায় শোকের ছায়া 

প্রকাশিত: ১০:১৪ অপরাহ্ণ, আগস্ট ৩০, ২০২০

সেলিম চৌধুরী,বিশেষ প্রতিনিধিঃ-

চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের পটিয়ার বাইপাস সড়কের  গাড়িচাপায় প্রাণ হারাল দুই স্কুলছাত্র। ৩০ আগষ্ট

রবিবার বেলা সাড়ে  ৪টার দিকে এ মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন, সিরাজুল ইসলাম (১৪), সে শোভনদণ্ডী এলাকার কুরাংগীরি হাই স্কুলের ৬ষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্র। নিহত সিরাজ উপজেলার শোভনদণ্ডী ইউনিয়নের কুরংগীরি গ্রামের মোহাম্মদ বেলালের পুত্র। বর্তমানে সে পটিয়া পৌর সদরের ৪ নং ওয়ার্ডের শেয়ানপাড়া এলাকায় পরিবারের সাথে ভাড়া বাসায় থাকেন। অপর নিহত আরমান হোসেন (১৩), সে পটিয়া পৌর সদরের মোহছেনা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৫ম শ্রেণীর ছাত্র। নিহত আরমান পটিয়া উপজেলার আশিয়া ইউনিয়ন এলাকার ইলিয়াস হোসেনের পুত্র। বর্তমানে সে পরিবারের সাথে পৌর সদরের ৬ নং ওয়ার্ডের পাইকপাড়া গ্রামে ভাড়া বাসায় বসবাস করছেন সুএে জানাযায়। কোন গাড়ি চাপা দিল তা এখনো বলতে পারছে না পটিয়া ক্রসিং হাইওয়ে পুলিশ। তবে স্থানীয়রা বলছেন একটি সাদা রঙের পিকআপ ভ্যানের চাপায় এই দুই স্কুল ছাএ    প্রাণহানির ঘটনা ঘটেপ্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয় বাসিন্দা জসিম উদ্দিন বাবর, মোঃ আজাদ, সুমন দাশ, মোঃ আরিফ  জানান. পটিয়ার বাইপাস সড়কের পৌর এলাকার শেয়ানপাড়া এলাকার অংশে দুই স্কুল ছাত্র বাইসাকেল নিয়ে সড়কে উঠে। এসময় কক্সবাজারগামী একটি সাদা পিকআপ ভ্যান চাপা দিয়ে

দ্রুত  পালিয়ে  যায়। পরে স্থানীয়রা দুই স্কুল শিক্ষার্থীকে গুরুতর আহতবস্থায় উদ্ধার করে   পটিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখানে নেওয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক জিয়াউদ্দিন সাকিব জানান, দুই শিক্ষার্থীর মাথা থেতলে গিয়ে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ হয়। আমরা ইসিজি করে দুই শিক্ষার্থীকে মৃত ঘোষণা করেছি।পটিয়া ক্রসিং হাইওয়ে পুলিশের ওসি বিমল চন্দ্র ভৌমিক জানান, বাস চাপায় দুই স্কুল ছাতকে গাড়ি চাপা দিয়ে পালিয়ে যায়। এখনো পর্যন্ত কোন ধরনের গাড়ি চাপা দিতে পারে তা বলতে পারছি না। আমাদের টিম তদন্ত চালিয়ে যাচ্ছে। ঘাতক গাড়ি চালককে দ্রুত আটক করার জন্য অভিযান চলছে। তবে এ দুই স্কুল ছাএ মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হওয়ায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে। সুএে জানাযায়, এই দুইজন স্কুল ছাএ সম্পর্কে মামাতো ফুফাতো ভাই। বিকেলে অবসর সময়ে সাইকেল চালিয়ে বাইপাস সড়কে য়ায় এখান থেকে আর জীবিত আসেনি ফিরেছে লাশ হয়। জীবনের আর স্কুলে যাওয়া হবেনা তাদের একেবারে চলে গেলেন না ফেরার দেশে আমিন।

সেলিম চৌধুরী

পটিয়া প্রতিনিধি

পটিয়া চট্টগ্রাম

০১৮১৯৩৪৯৪৪২