বেসরকারি শিক্ষা ব্যবস্থা জাতীয়করণের লক্ষ্যে মত বিনিময় ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত।

প্রকাশিত: ১১:৫১ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২৭, ২০২০

কুষ্টিয়া দৌলতপুর প্রতিনিধি ::::

বাংলাদেশ ভোকেশনাল শাখা শিক্ষক সমিতি, দৌলতপুর উপজেলা শাখা, দৌলতপুর কুষ্টিয়া

কর্তৃক আয়োজিত আজ ২৭ আগস্ট, ২০২০। সকাল ১১ ঘটিকার সময় বড়গাংদিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অফিস কক্ষে এক মত বিনিময় সভা ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

আলোচনা সভার মূল বিষয় হলো বেসরকারি শিক্ষা ব্যবস্থা জাতীয়করণ।

জনাব মোঃ শরিফুল ইসলাম, সাবেক জেলা সভাপতি কুষ্টিয়া সভাপতিত্বে আজকের এই আলোচনা সভায়

বক্তব্য দেন,জনাব মোঃ আলমগীর হোসেন -সাধারণ সম্পাদক, বাংলাদেশ ভোকেশনাল শিক্ষক সমিতি। কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটি। তিনি বলেন বেসরকারি এমপিওভুক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জাতীয় করনের জন্য অনেক সংগঠন এর সাথে কথা বলেছেন। সকল সংগঠন একাত্মতা ঘোষণা করেছেন । তিনি বলেন সকল বৈষম্য দুরীকরন করতে শিক্ষা মন্ত্রনালয়, শিক্ষা সচিব, মাউশি, কারিগরি ও মাদ্রাসা অধিদপ্তরে এ বিষয়ে কথা বলবেন। জাতীয়করণ করলে সরকারের বাড়তি কোনো খরচ হবে না। আরো অনেক বিষয় আলোচনা করেন।

জনাব মোঃ মিজানুর রহমান স্যার বলেন, এক দফা এক দাবী বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জাতীয়করণ চাই।

জনাব মোঃ আতিয়ার রহমান স্যার বলেন বেসরকারি এমপিওভুক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জাতীয়করণ করতে হলে সকল কেন্দ্রীয/জেলা/উপজেলার নেতাদের এক হয়ে বেসরকারি এমপিওভুক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জাতীয়করণের

গুরুত্ব ও বিষয়টি যদি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার কাছে উপস্থাপন করা যায় তাহলে হয়তো জাতীয়করণ সম্ভব। অর্থাৎ সকল সংগঠন কে ঐক্য গড়ে তুলতে হবে।

জনাব মোঃ সোহেল সরওয়ার স্যার বলেন, বেসরকারি কথাটি থেকে আমরা “বে”কথাটি বাদ চাই। শিক্ষা ব্যবস্থা জাতীয়করণের লক্ষে কেন্দ্রীয় নেতারা যেভাবে দিক নির্দেশনা দিবেন সেভাবে এগিয়ে যেতে হবে এবং একটি বড় ধরনের আন্দোলন করতে হবে। যেখানে সকল বেসরকারি শিক্ষক উপস্থিত থাকতে হবে।

জনাব মোঃ আশরাফুজ্জামান হানিফ বলেন বেসরকারি শিক্ষা ব্যবস্থার সকল বৈষম্য দূুর করতে হলে জাতীয়করণ চাই। এই জন্য সকল সংগঠন কে এক সাথে।

জনাব হাসানুজ্জামন বলেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্ন বাস্তবায়নের লক্ষ্যে দেশের শিক্ষা ব্যবস্থা জাতীয়করণ করতে হবে।

রাজু আহাম্মেদ বলেন, শিক্ষা কে মানসম্মত, ফলপ্রসূ, আনন্দাদায়ক, শিক্ষার উদ্দেশ্য সফল করতে হলে এবং বেসরকারি শিক্ষক রা যে চরম বৈষম্যের শিকার তা দূর করতে হলে জাতীয়করণ করতে হবে। এটি বাস্তবায়ন করতে জাতীয় প্রেসক্লাব এ মানববন্ধন ও অবস্থান কর্মসূচি পালন করতে হবে।

জনাব নজরুল ইসলাম বলেন, বেসরকারি শিক্ষা ব্যবস্থা জাতীয়করণ করলে গুনগত শিক্ষা পাওয়া সম্ভব।

জাহাঙ্গীর আলম স্যার তার অভিমত ব্যক্ত করেন।

এছাড়া আরোও অনেক শিক্ষক নেতা বক্তব্য ও তাদের মতামত তুলে ধরেন, বাড়তি কোনো সুবিধা ছাড়াই শিক্ষক দের কাছ থেকে অতিরিক্ত ৪% কর্তন এটা বাতিল চেয়ে, বাড়ী ভাড়া ১০০০ টাকা, চিকিৎসা ভাতা ৫০০ টাকা, উৎসব ভাতা ২৫% যা অতি নগণ্য। বেতন পেতে অনেক বেগ পেতে হয়। এই সকল বৈষম্য দূর করার একমাত্র উপায় জাতীয়করণ।

সবশেষে সভাপতির সমাপনী বক্তৃতার মধ্য দিয়ে আলোচনা ও মত বিনিময় সভার সমাপ্ত ঘোষণা।